ঘর-গৃহস্থালীর ১০টি পরামর্শ

ঘর-গৃহস্থালীর ১০টি পরামর্শ

দৈনন্দিন জীবনে আমাদের নিজ গৃহে উদ্ভূত নানা ধরনের সমস্যা, সমাধান, গৃহের সৌন্দর্য, শৃঙ্খলা, শান্তি প্রভৃতি গৃহিণীকেই সামলাতে হয়। এ ধরনের সমস্যা সমাধানে প্রায়শই বিপত্তি দেখা দেয়। তবে একটু মাথা খাটালেই এসব সমস্যা কোনো সমস্যাই তৈরি করতে পারে না। এমনই দশ টিপস দেওয়া হল:

অনেকদিন বন্ধ থাকা বা অব্যবহৃত ঘর খুললে একটা ভ্যাপসা গন্ধ বের হয়। দু-তিনটে দেশলাই কাঠি জ্বালালে দু-তিন মিনিটের মধ্যে ঘর থেকে গন্ধ চলে যাবে।
পোড়ামাটির জিনিসপত্র পরিষ্কার রাখতে হলে ওগুলোর ওপর ন্যাচারাল রঙের নেল পালিশ লাগিয়ে দিন। রং অক্ষত থাকবে আর নোংরা হবে না।
চশমা ঝকঝকে পরিষ্কার রাখতে হলে এক ফোঁটা ভিনিগার দিয়ে কাঁচ পালিশ করুন।
কাঠের আসবাবপত্র ঠাণ্ডা চা-পাতা ফোটানো জল দিয়ে পালিশ করুন। ঝকঝকে হয়ে উঠবে।
ফ্রিজের গায়ে দাগ ধরে গেলে স্পঞ্জে টুথ পেস্ট লাগিয়ে ঘষুন। দাগ উঠে যাবে।
ফ্লানেলের টুকরো গ্লিসারিনে ভিজিয়ে দাগ ধরা জানালার কাঁচে ঘষুন। কাঁচ ঝকঝক করবে। কাঠ বাস্টিলের টেবিলে ঘষুন। সেখানকার দাগ উঠবে।
জানালা, দরজার কাঁচ ঝকঝকে করে তুলতে মিহি চকগুঁড়োর সঙ্গে জল আর স্পিরিট অথবা কেরোসিন মিশিয়ে কিছুক্ষণ কাঁচের ওপর মাখিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে খবরের কাগজ দিয়ে মুছে নিন।
ডিটারজেন্টের সঙ্গে একটা লেবুর রস ও একচামচ ফিনাইল মিশিয়ে বাথরুমের টাইলস ঘষে দেখুন, কেমন ঝকঝক করে।
হাতব্যাগের ধাতব অংশগুলোতে ন্যাচারাল কালারের নেল পালিশের একপ্রস্থ প্রলেপ দিয়ে রাখুন। সহজে বিবর্ণ হবে না।
ছোট্ট এক টুকরো ফ্লানেল বা কম্বলের কাপড়ে পাতিলেবুর রস মাখিয়ে চামড়ার ব্যাগ বা স্যুটকেসে ঘষলে। চামড়ার ঔজ্জল্ল্য বাড়বে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s